ভালোবাসা বুঝে নিতে হয় : ছয়

সোমবার মে ৪, ২০২০ ১২:৩৯

পাতাটি ৩৮৪ বার পড়া হয়েছে।

৫ম পাতার পর…

রাত এগারোটা দশ মিনিট। আকাশ কে অনলাইনে দেখে নক করলাম- কোথায় তুমি?

সে বললো- আমি বাইরে আছি।

– এখোনো বাইরে? কি করছো?

– বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছি।

– ওহ আচ্ছা, বাসায় কখন যাবে?

– কিছুখনের মধ্যেই চলে যাবো।

– আচ্ছা বাসায় গিয়ে নক দিও।

– ঠিক আছে।

প্রায় ঘন্টাখানেক পর মেসেজ দিলো সে- কি করছো?

– তোমার অপেক্ষা।

– তাই? আসবো তোমার কাছে?

– বন্ধুদের নিয়েই মেতে থাকো রাত ১২টা পর্যন্ত আর আমার কাছে আসবা কখন।

– ১২টার পর।

– থাক আর লাগবে না। তুমি তোমার বন্ধুদের নিয়েই থাকো।

– ঠিক আছে।

– ঠিক আছে মানে?

– মানে কিছুনা।

– কথা ঘুরাচ্ছো কেন? বিয়ের পরেও কি বন্ধুদের নিয়ে রাত অর্ধেক কাটিয়ে বাসায় আসবা?

– বিয়ের পর কি বউ পেয়ে বন্ধুদের ত্যাগ করে দিবো নাকি

– না, তা কেন করবে। তুমি তো তুমিই…

– হুম, বুঝে তো গেছোই তাই এডযাষ্ট করে নিও।

– এছাড়া কি আর করবো।

– করার অনেক কিছু আছে।

– যেমন?

– আমার খেয়াল রাখবা, আদর যত্ন করবা, স্বামীর সেবা করা সওয়াবের কাজ বুঝলে?

– জী, বুঝলাম। তা আর কি কি সেবা করতে হবে আপনার শুনি,

– অই তো যা যা বললাম এগুলোই। রাতে ঘরে এলে দরজা টা খুলেই একটা মিষ্টি হাসি দিবে যাতে সারাদিনের ক্লান্তি ভূলে যাই।

– আর?

– কানের কাছে প্যানপ্যান করবা না অযথা। অতিরিক্ত কথা বলা আমার পছন্দ নয় তাই প্রয়োজন ছাড়া কোনো কথা বলে বিরক্ত করবে না।

– আর?

– আর বাকিসব বিয়ের পর কাছে থাকলেই বুঝে যাবে তোমার স্বামী কখন কি চায়।

– ঠিক আছে। সেই অপেক্ষায় থাকলাম।

– আচ্ছা জান এখন ঘুমাও অনেক রাত হয়েছে।

– আর তুমি কি করবে?

– আমিও ঘুমাবো। শুভরাত্রি।

– শুভরাত্রি।

যতই দিন পার হচ্ছে আমাদের সম্পর্কের মধুরতা বাড়ছে, বাড়ছে আকর্ষণ। যতখন ওর সাথে কথা বলি মনে হয় স্বপ্নরাজ্যে ওড়ে বেড়াচ্ছি। ওকে জীবনের প্রতিটা মূহুর্তের সাথে এভাবে জড়িয়ে ফেলবো কখোনো কল্পনা করিনি। ভালোবাসা টা কখন জানি হয়ে গেছে নিজেও টের পাইনি।

যখন থেকে প্রতি মূহূর্তে কেবল ওর মুখটাই চোখে ভাসে আর ওর বলা কথাগুলো কানে বাজে সারাখন তখন থেকেই বুঝে নিয়েছি আমি আকাশ কে ভালোবাসি…… হ্যা, ঠিক বলছি আকাশ। আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি, তুমি কি শুনতে পাচ্ছো…?

তুমি জানো? তোমার সাথে একটু কথা বলার জন্য, তুমি কেমন আছো জানার জন্য সারাটা দিন মনটা ব্যকুল হয়ে থাকে, যেদিন তুমি আমার কাছে কল করোনা সেদিন আমার কোনো কাজে মন বসে না। সারাখন মনটা তোমার কাছে পরে থাকে আর ভাবতে থাকি তুমি কি করছো, কেমন আছো, আমার কথা কি একবারো মনে পরে না তোমার?

যখন বৃষ্টি নামে ইচ্ছে করে তোমার হাত ধরে ভিজি আর বৃষ্টির সুরে ও ছন্দে হারিয়ে যাই দুজন কোনো অজানায়। তোমার চোখে তাকিয়ে আমি আমাকে খুজতে চাই, কতটা ভালোবাসা আছে মেপে নিতে চাই। কেন তুমি বুঝতে চাও না তোমাকে কতটা মিস করি, কেন তোমায় এত ভালো লাগে বলতে পারো..?

মোবাইল টা হাতে নিলাম আকাশ কে নক করার জন্য এমন সময় ওর মেসেজ- কি করছো?

– তোমার কথাই ভাবছিলাম।

– তাই? তা কি ভাবছিলে আমার কথা…

– ভাবার কি শেষ আছে? কিন্তু তুমি তো বুঝনা।

– বুঝি গো সোনা সবই বুঝি কিন্ত বুঝেও কিছুই করার নাই।

– কেন করার নাই, তোমার কি আমার সাথে সময় কাটাতে ইচ্ছা হয় না?

– ইচ্ছা অবশ্যই হয় কিন্তু সময় কই বলো..

– তোমার ইচ্ছাই হয় না জানি আমি।

– কিছুই জানো না তুমি।

– জানাও না তো জানবো কিভাবে..

– তোমাকে অনেক অনেক ভালোবাসি, এটা জানো?

– না তো

– এখন তো জানলে।

– হ্যা, কিন্তু জেনে কি হবে?

– তুমিও ভালোবাসবে আমার মত করে।

– তোমাকে ভালো বাসা আর একটা রোবট কে ভালোবাসা এক কথা।

– এটা কি বললা?

– ঠিকই তো বললাম।

– আমাকে রোবট মনে হয়?

– হ্যাঁ, শুধু মনেই হয় না। তুমি তো রোবট ই।

– আচ্ছা, তো কেন আমাকে রোবট মনে হয় জানতে পারি?

– কোনো ফিলিংস ই তো নাই তোমার।

– কিভাবে বুঝলা আমার ফিলিংস নাই?

– আমার কথা মনে পরে না, আমার সাথে সময় কাটাতেও ইচ্ছা করে না, এগুলো কি প্রমান করে না? তুমি একটা রোবট।

– পাগলী আমার, কি বলে রে…

– এখন আমি পাগলী?

– আর নয়তো কি?

– তুমিই বলো আমাকে অনেক ভালোবাসো আবার আমাকে একটুও সময় দাও না তো আমি কি বলবো বলো?

– আরে বোকা এখন সময় পাই না বলে কখোনোই যে পাবো না এমন তো না, কেন এমন ভাবো?

– আমার মনটা যে সারাখন তোমার কাছে পরে থাকে এটা তো বুঝনা..

– সব বুঝি জান। দৈর্য্য ধরো একটু, আমি ফ্রি হলেই তোমাকে সময় দিবো।

– আর হইবা তুমি ফ্রি, আমি বুড়ি হলে।

– সমস্যা কি? তখন বুড়া বুড়ি প্রেম করবো।

এভাবেই আকাশ আমার মনের সব হতাশা, আকাংখা ওর ভালোবাসার রঙে রাঙিয়ে দিতো। আমারও মন ভালো হয়ে যেতো মূহূর্তেই। ওর ব্যস্ততা থাকে অনেক এটা জেনেও কেন যে অদৈর্য্য হয়ে যেতাম, মনকে পারতাম না কোনকিছু বুঝাতে, সময় অসময়ে তাকে বিরক্ত করতাম শুধু ওর সাথে কথা বলার জন্য।

চলমান….

ভালোবাসা বুঝে নিতে হয়

মতামত জানান