এখানে একদা বটবৃক্ষ ছিল, আজ সে শুধু স্মৃতি, এখানে ভালোবাসার আশা ছিল, নির্মম পরিণতি ভাগ্যের; ছায়া নেই, মায়া নেই, কান্নার শব্দ শুনি বুকের গহীনে৷ ফিরে এসো প্রিয়তমা, হোক সুমতি! আমার কবরের পরে আজ গজিয়েছে সবুজ ঘাস, সাদা সাদা ফুলে সেজেছে দেখ, শেষ শরতের কাশ; তুমি একবার এসো, তোমার নবীন প্রিয়েরআরও পড়ুন

অপরাহ্ণ৷ দগ্ধকাঞ্চনবৎ সৌরদ্যূতি ক্রমে ম্লান হচ্ছে, দিগন্তবলয়ে আশ্রয়প্রার্থী দিনমণি৷ সারাদিনের প্রস্তুতি শেষে দিগন্তরেখার ওপারে চলে যাবে সূর্য৷ সে সময়ে শতাধিক শ্রমণকে অষ্টাঙ্গিক মার্গ শিক্ষা দিচ্ছেন ঋষি অমিতাভ৷ মঠের বহিঃদ্বারে দাঁড়িয়ে আছেন অপার্থিব সৌন্দর্যের অধিকারিণী এক নারী৷ দীঘলাঙ্গী, হরিণাক্ষী৷ নিম্নাক্ষীপাত হতে ঈষৎ উত্থিত৷ কপোলে মুক্তার মতো সফেদ বারিবিন্দু৷ কম্পিত অধরোষ্ঠ, স্নিগ্ধমায়াময়আরও পড়ুন

আকাশ আমার জন্য একটা নীল শাড়ি এনে হাতে দিলো আর বললো কাল এটা পড়ে আসবে আমরা ঘুরতে যাবো। এই বলে সে চলে গেলো আর আমি থ হয়ে তাকিয়েই রইলাম। সকাল হলো আমিও মনের আনন্দে ওর দেয়া শাড়িটা বের করলাম আর গায়ে জড়াতে লাগলাম মনে হচ্ছিলো ওর সংস্পর্শ অনুভব করছিলাম। একআরও পড়ুন

১৯ তম পাতার পর….. আমার সর্বাঙ্গে আনন্দের হিল্লোল বয়ে যাচ্ছে। এই প্রথম শিউলীর সাথে মনের কথা শেয়ার করতে পারলাম। আরো অনেক কিছুই বলার ছিলো। মন চাইছিলো না এত সকাল শেষ করতে। কিন্তু ও প্রান্তে একজন গৃহবধু সে। তার অনেক দায়-দায়িত্ব থাকতে পারে। দীর্ঘ সময় চ্যাট করলে শ্বশুর বাড়ির লোকদের খারাপআরও পড়ুন

করিয়াছ বহুদিন রাজ, নামিতে হইবে আসন ছাড়িয়া, ছাড়িতে হইবে সাজ। ভাবিয়াছ কি তুমি বর্ণীল ঘুড়ি উড়িবা আকাশ জুড়িয়া? হায়রে বোকা মানব! দম ফুরাইবে, সাঙ্গ হইবে তোমার ভব লীলা। কী জবাব দিবে মহারাজের কাছে যেইদিন চাহিবে হিসেব? সেইদিন তোমার এই ভবের সবই হইবে বেহিসেব। করিয়াছ চুরি গড়িয়াছ ধন ঠকাইয়া মানুষজন, সেইআরও পড়ুন

ইচ্ছে করে তোমার হাত দুটি ধরে ঘুরে আসি নিকলী হাওরে৷ এই ভরা বর্ষায় উদ্ভিন্ন যৌবনা নিকলীর ভয়ঙ্করী ঢেউয়ের দোলায় চলো ভাসি! এভাবে মুখেরে কেন করেছ আকাশ-শ্রাবণা? ওহ, বুঝেছি! তুমি তো সাঁতার জানো না, সখি! প্রেম হচ্ছে নিঃসঙ্কোচে হাত ধরে বেঁচে থাকা৷ হৃদয়কে হৃদয়ের খুব কাছে আছি, (হ্যাঁ তাই বৈকি!) বিশ্বাসআরও পড়ুন

তিনদিন পর আকাশের হুশ ফিরেছে৷ হাসপাতালের বেডে শুয়ে তার মনে পড়ছে রূপার কথা৷ কী সুন্দর মুখশ্রী রূপার! শান্ত, কোমল, মনোহারিনী! আকাশ ভাবতে পারে না, রূপা এমন করতে পারে৷ রূপার সাথে আকাশের পরিচয় হয়েছিল চকবাজারে এক বন্ধুর অফিসে৷ প্রেমে পড়ার সে পুরোনো পদ্ধতি, প্রথম দেখাতেই ভালো লাগা৷ সে তার বন্ধু নবীনকেআরও পড়ুন

হাসপাতালের জরুরী বিভাগের বিছানায় পড়ে আছে অর্ধমৃত একজন লোক৷ এইমাত্র তাকে ভর্তি করা হয়েছে৷ মাথার লম্বা চুল ভিজে আছে তাজা রক্তে৷ পরনে কালো রঙের টিশার্ট৷ টিশার্টের বুকে সাদা ব্লকের লেখা Never Give Up রক্তে রাঙা হয়ে আছে৷ ডাক্তার এসেছেন, পরীক্ষা করে নার্সদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়ে গেছেন৷ শরীরে আঘাতের চিহ্ন বেশিআরও পড়ুন

নিকলী হাওর কিশোরগঞ্জ- নিকলী হাওর কিশোরগঞ্জের অন্যতম সুন্দর পর্যটন স্থান। এটি কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলায় অবস্থিত। কিশোরগঞ্জ থেকে নিকলির দূরত্ব প্রায় ২৫ কিলোমিটার। নিকলী হাওরে দেখার সময়ঃ নিকলী হাওর দেখার উপযুক্ত সময় হলো বিকেল। খেয়ে এবং অন্যান্য ক্রিয়াকলাপ শেষ করে বাঁধের শেষে আসুন। হাওরে ভ্রমণের জন্য আপনি সেখানে প্রতি ঘন্টা নৌকাআরও পড়ুন

৫ম পাতার পর… রাত এগারোটা দশ মিনিট। আকাশ কে অনলাইনে দেখে নক করলাম- কোথায় তুমি? সে বললো- আমি বাইরে আছি। – এখোনো বাইরে? কি করছো? – বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছি। – ওহ আচ্ছা, বাসায় কখন যাবে? – কিছুখনের মধ্যেই চলে যাবো। – আচ্ছা বাসায় গিয়ে নক দিও। – ঠিক আছে।আরও পড়ুন

১৮ তম পাতার পর….. দিনের সিঁড়ি বেয়ে মাস, মাসের সিঁড়ি বেয়ে বছর। এভাবে অর্ধযুগ ফেরিয়ে গেল। ব্যস্তময় বাস্তব জীবনে আগের মতো সময় নেই, আবেগগুলো যেন কর্মের নীচে চাপা পড়ে গেছে। এর মধ্যে শিউলী ফুটফুটে দুই কন্যা সন্তানের মা হলো। আমিও দুই কন্যার বাবা হলাম। শিউলীর আর আমার জীবন বাস্তবতার দূরত্বআরও পড়ুন

গ্রামের ছেলেরা তাকে ফাতুপাগলা বলে ক্ষ্যাপাতো। এই নামেরও একটা ইতিহাস আছে। সে কথা পরে বলি। দীনদার পিতা তার নাম রেখেছিল আল্লাহর নবীর নামে। নবী সোলেমান। দাউদ নবীর ছেলে সোলেমানও নবী ছিলেন। জগদ্বিখ্যাত বাদশা। পৃথিবীর সকল প্রাণী, গাছ-গাছালি, এমনকী জীন-পরীরাও তার অনুগত ছিল। কহবাত আছে, বানোরা গ্রামের নবী সুলেমানেরও অনুগত পরীআরও পড়ুন