চিকিৎসা সেবার অনন্য দৃষ্টান্ত দিনাজপুরের দুই সহদর

ফিচার

৫১বছর ধরে ৪০ টাকা ভিজিটে রোগীর চিকিৎসা করে, চিকিৎসা সেবায় এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে যাচ্ছেন দিনাজপুরের হিন্দু দুই সহোদর শ্রী বসন্ত কুমার রায় এবং তরুন কুমার রায়।

বসন্ত কুমার রায় জন্ম ১৯৩৯ সালে ১জানুয়ারি।
পৈত্রিক নিবাস বর্তমান পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জের সুন্রদীঘি গ্রামে।
তার বাবা মধুসূধন রায় ও মাতা অহল্লা বালা রায়।
তিঁনি ১৯৬৫ সালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হতে MBBS ডিগ্রি অর্জন করেন।
ডিগ্রি নিয়ে তিনি নিজ শহর দিনাজপুরে ফিরে আসেন। শুরু করেছিলেন চিকিৎসা সেবা। তখন তিনি ভিজিট নিতেন ১ টাকা বর্তমানে রোগী দেখেন ৪০ টাকা ভিজিটে। কথা বলে জানা যায় তাও নির্ধারিত নয়। প্রত্যক্ষসূত্রে দেখা যায় বসন্ত কুমারের বাড়িতে সকাল হতে রাত পর্যন্ত রোগীদের ভীড় লেগেই থাকে। ১১মার্চ ২০১৮তে তিনি চিকিৎসা সেবার ৫১বছর পার করবেন।
ব্যক্তিজীবনে তিনি স্বামী বিবেকানন্দের পরম ভক্ত।
তিনি মুক্তিযুদ্ধের শরনার্থী ক্যাম্পেও চিকিৎসা প্রদান করেছিলেন কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে তার নাম মুক্তিযুদ্ধার তালিকায় ঠাই পায়নি।

তার ছোটভাই তরুন কুমার রায় ও ৪০ টাকা ভিজিটে একই এলাকায় রোগী দেখেন।
আরও খোজ নিয়ে জানা গেল রায় পরিবারে ৬ জনই চিকিৎসক।

তাদের চিকিৎসা সেবায় খুশি ও উপকৃত এলাকার সর্বস্তরের মানুষ।
এলাকার মানুষজন তাদেরকে খুব সম্মান ও ভালবাসেন যার ফলে তারা সরকারের প্রতি আকুল আবেদন জানান, জাতীয় স্বীকৃতি স্বরুপ কোন রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *